আমি দর্শকের বিশ্বাসের মর্যাদা দেবো : চয়নিকা চৌধুরী

‘আমি দর্শকের বিশ্বাসের মর্যাদা দেবো’ – এমনটিই জানালেন ছোটপর্দার জনপ্রিয় নির্মাতা চয়নিকা চৌধুরী। আজ রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি একথা জানান।  তিনি প্রথমবারের মতো নির্মাণ করতে যাচ্ছেন পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র, ‘বিশ্বসুন্দরী’। রুম্মান রশীদ খানের কাহিনী, চিত্রনাট্য ও সংলাপে নির্মিত হতে যাচ্ছে এ চলচ্চিত্রটি। এ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে এবারই প্রথম জুটি বাঁধতে যাচ্ছেন ঢালিউডের ‘ডানা কাটা পরী’ – খ্যাত পরীমনি ও জনপ্রিয় নায়ক সিয়াম আহমেদ। এ চলচ্চিত্রটির ‘শুভ সূচনা’ করতেই এ আয়োজন।

অনুষ্ঠানের শুরুতে বক্তব্য রাখেন প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান সান মিউজিক এন্ড মোশন পিকচার্স লিমিটেডের চিফ অপারেটিং অফিসার অজয় কুমার কুন্ড। তারপর বক্তব্য রাখেন চয়নিকা চৌধুরী।

প্রথমবারের মতো চলচ্চিত্র পরিচালনা নিয়ে চয়নিকা বলেন, সব পরিচালকেরই সিনেমা বানানোর স্বপ্ন থাকে। আজ আমার সেই স্বপ্ন পূরণ হতে যাচ্ছে। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের একটা কথা আছে, ভাব যেখানে প্রবল, ভাষা সেখানে দুর্বল। আজ আমি এত বেশি আবেগ আপ্লুত হয়ে আছি, সেটা ঠিক বোঝাতে পারব না।

চয়নিকা আশার সুরে বললেন, দর্শক অনেক বুদ্ধিমান, তারা চায় ভালো কনটেন্ট। আমি কিন্তু অত মেধাবী পরিচালক না। তবে আমি ভীষণ পরিশ্রমী। আমার বিশ্বাস, তারা আমাকে বিশ্বাস করেছে। আমি তাদের সে বিশ্বাসের মর্যাদা দেবো।

তারপর একে একে শিল্পীদের সাথে পরিচয় করিয়ে দেয়া হয়। মঞ্চে আসেন আনন্দ খালেদ, মুনিরা মিঠু, সুবর্ণা মুস্তাফা, সিয়াম আহমেদ এবং সবার শেষে পরীমনি। তারা প্রত্যেকে বক্তব্য প্রদান করেন।

সিয়াম আহমেদ বলেন, বিশ্বে যা কিছু মহান সৃষ্টি চির-কল্যাণকর, অর্ধেক তার করিয়াছে নারী, অর্ধেক তার নর। পৃথিবীতে যদি কেউ বিশ্বসুন্দরী হয়, তাকে কোনো-না-কোনো পুরুষই বিশ্বসুন্দরী বানিয়েছে। না হয় তার পেছনে আছে। নারীদের সফলতার পেছনে শক্তি হিসেবে কাজ করতে পারাটা কিন্তু খুবই আনন্দের বিষয়।

পরবর্তীতে সিয়াম জানালেন, এই ফিল্মে অভিনয় করার একটা লোভ আমার মধ্যে ছিল। সে লোভটা হলো সুবর্ণা ম্যামের সঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করতে পারব।

উপস্থাপকের অনুরোধে সিয়াম গিয়ে তার সিনেমার পরীকে সবার সামনে নিয়ে আসেন। প্রায় দেড় বছর পর নতুন সিনেমায় যুক্ত হওয়া পরী তার স্নিগ্ধ হাসি দিয়ে মঞ্চে ওঠেন।

পরী জানান, আমি ভীষণ একসাইটেড। স্বপ্নজালের পর আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম আমি যদি ভালো চিত্রনাট্য না পাই আর কোনো ছবিতে অভিনয় করব না। আমি এখনো আমার সে সিদ্ধান্তে অটল আছি, থাকবও।

সিনেমাটিতে কাজ প্রসঙ্গে পরী বলেন, এই ছবিতে আমার পরিচালক নতুন, হিরো নতুন। আমার প্রথম ছবিতে কাজ করতে গিয়ে যে অভিজ্ঞতা হয়েছিল, এ ছবির বেলাতেও তাই। সব থেকে ভয়ের বিষয় হলো, এ ছবিতে আমি সুবর্ণা ম্যামের সঙ্গে অভিনয় করতে পারব।

পরবর্তীতে সবাই কেক কেটে শুভ সূচনা করেন ‘বিশ্বসুন্দরী’ চলচ্চিত্রের।

প্রসঙ্গত, ‘বিশ্বসুন্দরী’ প্রযোজনা করছে সান মিউজিক এন্ড মোশন পিকচার্স লিমিটেড। ব্রডকাস্ট পার্টনার হিসেবে আছে মাছরাঙা টেলিভিশন। ছবিটির শুটিং জুনে শুরু হবার সম্ভাবনা রয়েছে।

ছবি: মোহসিন কবির রিফাত