উইন্ডিজকে ১৩০ রানের লক্ষ্য দিল বাংলাদেশ

উইন্ডিজকে ১৩০ রানের টার্গেট দিল বাংলাদেশ

তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে উইন্ডিজকে ১৩০ রানের লক্ষ্য দিয়েছে বাংলাদেশ। নিয়মিত বিরতিতে একের পর এক উইকেট হারিয়ে ১৯ ওভারে ১২৯ রানে অলআউট হয় টাইগার বাহিনী। ৪৩ বলে সর্বোচ্চ ৬১ রান করে আউট হন সাকিব।

এর আগে সোমবার (১৭ ডিসেম্বর) সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। ম্যাচটি শুরু হয় বাংলাদেশ সময় দুপুর সাড়ে ১২টায়।

টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতেই ফিরে যান তামিম ইকবাল। ব্যক্তিগত পাঁচ রান করে শেলডন কোটরেলের বলে কার্লোস ব্রাথওয়েইটের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফিরে যান। তামিমের পরেই আর ক্রিজে থাকতে পারলেন না ওপেনার লিটন দাস। থমাসের বলে ব্রাথওয়েইটের হাতে ক্যাচ দিয়ে তিনিও সাজঘরে ফিরে যান।

দুই ওপেনারের বিদায়ের পর ফিরে গেলেন সৌম্য সরকারও। শেষ ওয়ানডে তার ব্যাটে ঝড় দেখায় এদিনও সবাই আশায় বুক বেঁধে ছিল। কিন্তু সৌম্য সবাইকে হতাশ করে ব্যাক্তিগত পাঁচ রান করে প্যাভিলিয়নে ফিরে যান। কোটরেলের বলে পাওয়েলের হাতে ধরা পড়েন তিনি।

এরপর মাঠে নামেন মুশফিকুর রহিম। রোভম্যান পাওলের থ্রোতে রান আউটে কাটা পড়েন তিনি মুশফিকুর রহিম। শট সিঙ্গেল নিতে গেলে নন স্ট্রাইকে তার স্ট্যাম্প থ্রো করে ভেঙে দেন পাওয়েল। ৫ রান করেন মুশফিক।

মুশফিক আউট হওয়ার পর মাহমুদউল্লাহকে নিয়ে লড়াই চালিয়ে যাওয়ার ইঙ্গিত দেন সাকিব। তবে তারাও বেশি দুর এগুতে পারলেন না। মাত্র ২৫ রানের জুটি গড়ার পর বিচ্ছিন্ন হলেন। ১৯ বলে ১২ রান করে আউট হন কটরেলে বলে সাই হোপের হাতে ক্যাচ দিয়ে।

এরপর আরিফুল হককে নিয়ে ৩০ রানের জুটি গড়েন সাকিব। যদিও আরিফুল ছিলেন কিছুটা স্লো। ১৮ বল খেলে তিনি করেন ১৭ রান। তবুও এই জুটি বাংলাদেশকে ১০০ পার করে দেয়।

আরিফুল আউট হওয়ার পর মাঠে নামেন সাইফউদ্দিন। শেষ দিকে ঝড়ো ব্যাটিংয়ের খ্যাতি আছে যার। কিন্তু ২ বল খেলে মাত্র ১ রান করেই বিদায় নিতে হলো তাকে। কার্লোস ব্র্যাথওয়েটের বলে নিকোলাস পুরানের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরে গেলেন সাইফউদ্দিন।

সাইফউদ্দিন আউট হওয়ার পর সাকিব আল হাসানও ফিরে গেলেন দ্রুত। দলীয় ১২২ রানের মাথায় কটরেলকে রিটার্ন ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান সাকিব। মেহেদী হাসান মিরাজ ১০ বল খেলে কিমো পলের বলে উইকেটের পেছনে সাই হোপের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান। মোস্তাফিজুর রহমান কিমো পলের বলে বোল্ড হয়ে গেলে, ১ ওভার বাকি থাকতেই অলআউট হয়ে যায় বাংলাদেশ।

মতামত দিন