কোনো সিনেমা দর্শক ধরে রাখতে পারছে না!

গেল সপ্তাহে দুটো ছবি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায়। একটি হলো তৌকীর আহমেদের ‘ফাগুন হাওয়ায়’ অন্যটি হলো হাবিবুল ইসলাম হাবিবের ‘রাত্রির যাত্রী’। দুটো ছবিই মুখ থুবড়ে পড়েছে। অপ্রত্যাশিতভাবে কমে গেছে প্রেক্ষাগৃহের সংখ্যা।

প্রথম হপ্তায় প্রায় পঞ্চাশটি হল নিয়ে যাত্রা শুরু করা ভাষা আন্দোলনভিত্তিক সিনেমা ‘ফাগুন হাওয়ায়’ দ্বিতীয় সপ্তাহে নেমে এসেছে নয়টি প্রেক্ষাগৃহে। ছবিটিতে মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করেন ভারতের যশপাল শর্মা, সিয়াম, তিশা, আবুল হায়াত, সাজু খাদেম প্রমুখ। অন্যদিকে প্রায় কুড়িটির মতো প্রেক্ষাগৃহ পাওয়া মৌসুমী অভিনীত ‘রাত্রির যাত্রী’ নেমে এসেছে মাত্র তিনটি প্রেক্ষাগৃহে। আলোচিত হবার পরেও দুটো ছবির ভরাডুবিতে বাংলা চলচ্চিত্র নিয়ে শংকিত সিনে দর্শকরা।

ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তায় মুক্তি পাওয়া দুটো ছবি ‘আমার প্রেম আমার প্রিয়া’ এবং ‘দাগ হৃদয়ে’-ও দর্শক টানতে পারেনি। বছরের শুরুতে মুক্তি পাওয়া ‘আই অ্যাম রাজ’ তো ছিল হতাশাজনক। বছরের দুই মাস শেষ হতে চললেও কোন ছবি সফলতা বয়ে আনতে পারেনি।

এদিকে এ সপ্তায় মুক্তি পেয়েছে আরো দুটি ছবি। ছবিগুলো হল – বদিউল আলম খোকনের ‘অন্ধকার জগৎ: দ্য ডার্ক’ এবং রাজিবুল হোসেনের ‘হৃদয়ের রংধনু’।

ডি এ তায়েব ও মাহিয়া মাহি অভিনীত ‘অন্ধকার জগৎ: দ্য ডার্ক’ প্রথম সপ্তাহেই পেয়ে গেছে ষাটটি প্রেক্ষাগৃহ।  মাত্র একটি প্রেক্ষাগৃহ পেয়েছে ‘হৃদয়ের রংধনু’। এ ছবিতে অভিনয় করেছেন মিনা পেটকোভিচ (সার্বিয়া), শামস কাদির, মুহতাসিম স্বজন, খিং সাই মং মারমা প্রমুখ। ছবিটি প্রায় দুই বছর পর সেন্সর সার্টিফিকেট পায় গত বছরের ২৩ অক্টোবর।

প্রসঙ্গত, আসছে মাসে মুক্তি পাবার সম্ভাবনা রয়েছে মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজের ‘যদি একদিন’, শাকিব খান অভিনীত ‘শাহেনশাহ’, তাসকিন অভিনীত ‘বয়ফ্রেন্ড’ ইত্যাদি। সিনে দর্শকদের প্রত্যাশা মার্চ মাসে ফিরবে প্রেক্ষাগৃহের সুদিন।