বিদায়লগ্নে সুবীর নন্দী . . .

দর্শক, ভক্ত, সহকর্মীদের ফুলেল শুভেচ্ছা ও অশ্রুসিক্ত ভালোবাসায় বিদায় জানানো হলো বরেণ্য সংগীতশিল্পী সুবীর নন্দীকে। গতকাল (৮ই মে) শেষবারের মত শ্রদ্ধাঞ্জলি জানাতে সুবীর নন্দীকে নেওয়া হয় ঢাকেশ্বরি মন্দির, কেন্দ্রিয় শহীদ মিনার, বিএফডিসি, চ্যানেল আই চত্তর ও রামকৃষ্ণ মিশনে।

এর আগে সকাল সাড়ে ছয়টায় সিঙ্গাপুর থেকে ঢাকায় পৌঁছে সুবীর নন্দীকে বহনকারী উড়োজাহাজটি। বিমান বন্দর থেকে তাকে গ্রীন রোডের বাসায় নিয়ে যাওয়া হয়। সকাল ৯টায় গ্রীন রোডের বাসা থেকে ঢাকেশ্বরী মন্দিরে নিয়ে আসা হয় সুবীর নন্দীকে। সেখানে নেয়ার পর ফুলে ফুলে ঢেকে দেয়া হয় তার পুরো শরীর।

এসময় তার পরিবারের সব সদস্যকেই দেখা গেছে। এখানে উপস্থিত ছিলেন তার নিকট আত্মীয় স্বজনসহ অসংখ্য ভক্ত অনুরাগীরাও। সকাল সাড়ে দশটায় ঢাকেশ্বরী মন্দির থেকে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের দিকে যাত্রা করে তাকে বহনকারী গাড়িটি। আগেই পরিবার থেকে বলা হয়েছিলো, সকাল ১১টায় সব শ্রেণির মানুষের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য সুবীর নন্দীর মরদেহ রাখা হবে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে। ঠিক এগারোটায় শহীদ মিনারে তাকে শ্রদ্ধাঞ্জলি জানানো শুরু হয়। এই সময় শহীদ মিনারে উপস্থিত ছিলেন গণপূর্ত মন্ত্রী রেজাউল করিম, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ-এর ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ, সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কেএম খালিদ ও সাবেক তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনুসহ অনেকে। এছাড়া আরো দেখা গেছে সংগীতশিল্পী রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা, রামেন্দু মজুমদার, নাসির উদ্দিন ইউসুফ, ফকির আলমগীর, তিমির নন্দী, গাজী মাজহারুল আনোয়ার, মোহাম্মদ রফিকুজ্জামান, রফিকুল আলম, তপন মাহমুদ, শুভ্রদেব, এসডি রুবেল, ফুয়াদ নাসের বাবু, ফরিদ আহমেদ, অরুপ রতন চৌধুরী, রথীন্দ্র নাথ রায়, খুরশিদ আলম, নকিব খান, কুমার বিশ্বজিৎ, রবি চৌধুরী, শহীদুল্লাহ ফরায়জী, নায়িকা নুতন, গীতিকার মনিরুজ্জামান, মানাম আহমেদ, বাদশা বুলবুল, সাব্বির, রাশেদ, মুহিন, কিশোর ও নিশিতা বড়ুয়াকে।

শহীদ মিনার থেকে দুপর ১২টা ৫০ মিনিটে সুবীর নন্দীর মরদেহ নিয়ে আসা হয় বিএফডিসিতে। এসময় এফডিসিতে উপস্থিত ছিলেন চিত্রনায়ক আলমগীর, ওমর সানী, পরিচালক সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার, পরিচালক সমিতির মহাসচিব বদিউল আলম খোকন, অভিনেত্রী অরুনা বিশ্বাস, শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খানসহ নির্মাতা, অভিনেতা ও অভিনেত্রীরা। এফডিসি থেকে তাকে শেষ শ্রদ্ধা জানানোর জন্য দুপুর ১টা ৩০ মিনিটে চ্যানেল আই প্রাঙ্গণে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে তার মরদেহ নিয়ে যাওয়া হয় রামকৃষ্ণ মিশনে। তারপর সবুজ ভাগে তার শেষ কৃত্য সম্পন্ন করা হয়।

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার (৭ মে) বাংলাদেশ সময় ভোর ৪টা ২৬ মিনিটে সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান এই গুণী শিল্পী। মৃত্যুকালে সুবীর নন্দীর বয়স হয়েছিল ৬৫ বছর।