শোবিজে নিয়মিত হবার অপেক্ষায় মাধবী

প্রায় বছর তিনেক আগে ক্যারিয়ার শুরু করে টালিগঞ্জে গুটগুটি পায়ে নিজেকে এগিয়ে নিচ্ছেন মাধবী মজুমদার। পৈত্রিক নিবাস বাংলাদেশের নোয়াখালীর চৌমুহনি হলেও বর্তমানে বাস করছেন দক্ষিণ কলকাতায় টালিগঞ্জের কাছেই। জড়িয়ে গেছেন সিনেমার টানে। নিজের অবস্থান তৈরী করতে চাচ্ছেন বিনোদনের মূলধারা সিনেমায়। নিয়মিত হতে চাচ্ছেন শোবিজে।

কৌশিক সেন ও ইন্দ্রানি দত্তের সাথে অভিনয় করেছিলেন ‘সেদিন বসন্তে’ সিনেমায়। ২০১৬ সালের ১ সেপ্টেম্বর নন্দনসহ পশ্চিমবঙ্গের প্রায় ৪০টি প্রেক্ষাগৃহে সে সিনেমা মুক্তি পেয়েছিল। এরপর তিনি কাজ করেছেন কয়েকটি ডকুমেন্টারি ছবিতে। উল্লেখযোগ্য হলো গোপাল বোসের নারী নির্যাতনের উপর ভিত্তি করে নির্মিত ‘ইটস ইউ’ এবং ফেরদৌস খানের কাজী নজরুল ইসলামের জীবনভিত্তিক ডকু-ফিচার ছবি ‘বায়োগ্রাফি অব নজরুল’। ‘বায়োগ্রাফি অব নজরুল’ – এ কাজ করার সময় কৃষ্ণনগর রাজবাড়ীতে নজরুলগীতির সাথে কত্থক ভিত্তিক নাচ করেছেন তিনি।

মাধবী টিভি সিরিয়ালের পাশাপাশি সিনেমায়ও কাজ করছেন

মাধবী মজুমদার জানালেন তিনি কয়েকটি টিভি সিরিয়ালেও কাজ করেছেন। সেগুলো হল – জয়কালী কলকাত্তাওয়ালী, কুন্দ ফুলের মালা ও সন্ন্যাসী রাজা। এখন টিভি সিরিয়ালে কাজ করছেন না সময় করে উঠতে পারছেন না বলে। কারণ তাকে সংসার সামলাতে হয়। ছেলে পড়ছে ক্লাস এইটে, মেয়ে ফাইভে। স্বামী পশ্চিম মেদিনিপুরে এসিসট্যান্ট কমান্ডেন্ট অব সিআরপিএফ হিসেবে কর্মরত আছেন। সবকিছু সামলে অভিনয় করছেন তিনি।

টিভি সিরিয়ালে নিয়মিত হবার অপেক্ষায় মাধবী

তবে মাধবী আবার টিভি সিরিয়ালে নিয়মিত হতে চান। টিভি সিরিয়াল নিয়ে কিছু জটিলতা ছিল, সেগুলোর অবসান হওয়ায় মাধবী নতুন করে টিভি সিরিজে কাজ করার উৎসাহ পাচ্ছেন। যদিও সিনেমাতেই থিতু হতে চান তিনি। বলিউডেও যোগাযোগ করছেন তিনি, তাকে সেখানেও দেখা যেতে পারে। তিনি ভালো নির্মাতার সাথে কাজ করার স্বপ্ন দেখেন।

কথাপ্রসঙ্গে মাধবী জানালেন তিনি সাহসী হতে পারবেন তবে অযাচিতভাবে নয়। গল্পে যদি ন্যুডিটি আবশ্যক হয়, উপস্থাপনা যদি নান্দনিক হয় তবে কোন আপত্তি নেই মাধবীর। অর্থাৎ অপ্রয়োজনীয় ন্যুডিটির বিপক্ষে তিনি, যে দৃশ্য দর্শক ভালোবাসবে সে দৃশ্যই করতে চান তিনি।

বাংলাদেশের জয়া আহসান মাধবীর প্রিয় অভিনেত্রী

মাধবীর প্রিয় অভিনেত্রী দুই বাংলার নন্দিত শিল্পী জয়া আহসান। বাংলাদেশের এ অভিনেত্রীর ‘বিসর্জন’ দেখে তিনি মুগ্ধ হয়েছেন। বাংলাদেশের একজন শিল্পীর ভারতের জি সিনে এওয়ার্ড, ফিল্মফেয়ার এওয়ার্ড প্রাপ্তিতে তিনি আনন্দিত। এছাড়াও ‘দেবী’ নিয়ে তিনি বিভিন্ন লেখা পড়েছেন। ছবিটি দেখার সুযোগ হয়নি এখনো।

বাংলাদেশের তানভির মোকাম্মেল, মোস্তফা সরওয়ার ফারুকী, শাহাদাত রাসেল প্রমুখের সাথে কাজ করতে চান মাধবী। জয়ার সহশিল্পী হতে পারলে নিজেকে ধন্য মনে করবেন তিনি।

সত্যজিৎ রায়কে ভীষণ পছন্দ করেন মাধবী

উত্তম – সুচিত্রা জুটির ভক্ত মাধবী। তাদের সব ছবি তার দেখা। প্রিয় পরিচালক সত্যজিৎ রায়, মাধবীর মতে এমন মেধাবী চলচ্চিত্র ব্যক্তিত্বের অভাবে ভুগছে পুরো বাংলা। বলিউডে প্রয়াত শ্রীদেবী তার প্রিয়। এছাড়াও দেব আনন্দ, ঋত্বিক রোশন প্রমুখও তার প্রিয় শিল্পী।

মাধবী বাংলাদেশে পৈত্রিক নিবাস ঘুরে দেখতে আগ্রহী

মাধবী পুরোপুরি মাছে ভাতে বাঙালী। জানালেন ভাতের সাথে সবজি ও ডাল মাখিয়ে মাছ দিয়ে খেতে ভালোবাসেন তিনি। অবশ্য সাউথ ইন্ডিয়ান ফুড ও চাইনিজও ভালোবাসেন তিনি। ইন্টারন্যাশনাল হিউম্যান রাইটস এর সদস্য মাধবী জানালেন সুযোগ পেলেই তিনি বাংলাদেশ আসতে চান। বাবার পৈত্রিক নিবাস দেখার ইচ্ছে আছে তার।

সবশেষে বাংলাদেশের পাঠকদের শুভেচ্ছা জানালেন তিনি, পাশে থাকতে বললেন তার এই পথচলায়।