স্টার সিনেপ্লেক্সে আসছে নতুন দুই ছবি

স্টার সিনেপ্লেক্সে আগামী ৮ ডিসেম্বর মুক্তি পাচ্ছে নতুন দুই ছবি। একটি কমেডি নির্ভর থ্রিডি অ্যানিমেশন ‘রালফ ব্রেকস দ্য ইন্টারনেট’ অন্যটি অ্যাডভেঞ্চারধর্মী ছবি ‘মরটাল ইঞ্জিনস’। দ্বিতীয় ছবিটি ১৫ ডিসেম্বর যুক্তরাষ্ট্রে মুক্তি পাবে। তার আগেই বাংলাদেশের দর্শক ছবিটি দেখার সুযোগ পাচ্ছে। প্রথম ছবিটি গত ২১ নভেম্বর বিশ্বজুড়ে মুক্তি পেয়েছে।

‘রালফ ব্রেকস দ্য ইন্টারনেট’
২০১২ সালে প্রথম কিস্তি ‘রেক ইট রালফ’ মুক্তির পরপরই বাজিমাত করেছিল। ছোট-বড় সবাই ছবিটি পছন্দ করেছিল। এরপর থেকেই দর্শকরা অপেক্ষা করছিলেন সিক্যুয়ালের। প্রায় ৬ বছর পর সেই অপেক্ষার অবসান ঘটেছে। গত ২১ নভেম্বর আন্তর্জাতিকভাবে মুক্তি পেয়েছে ‘রালফ ব্রেকস দ্য ইন্টারনেট’। মুক্তির পর থেকে দর্শকদের আলোচনায় রয়েছে ছবিটি। বক্স অফিস রিপোর্টও বেশ আশাব্যাঞ্জক। অস্কারজয়ী পরিচালক রিচ মুর এই ছবি নির্মাণ করেছেন। রালফের চরিত্রে আগের মতোই কণ্ঠ দিচ্ছেন জন সি রেলি আর ভেনোলোপের কণ্ঠ দিচ্ছেন সারাহ সিলভারম্যান।

‘মরটাল ইঞ্জিনস’
পিটার জ্যাকসনের উপন্যাস ‘মরটাল ইঞ্জিনস’ অবলম্বনে নির্মিত হয়েছে ছবিটি। এ ছবির চিত্রনাট্য লিখেছেন পিটার জ্যাকসন। পরিচালনা করেছেন অস্কারজয়ী ভিজ্যুয়াল ডিরেক্টর ক্রিস্টিয়ান রিভারস। এতে অভিনয় করেছেন হিউগো ওয়েভিং, রবার্ট শিহান, স্টিফেন ল্যাং, হেরা হিলমার, লেইলা জর্জসহ আরো অনেকে। ১০০ মিলিয়ন ডলার বাজেটের ছবিটি পরিবেশন করছে ইউনিভার্সেল পিকচার্স। ‘প্রেডাটর সিটিস’ নামে খ্যাত চারটি উপন্যাসের সিরিজের প্রথম উপন্যাসের নাম ‘মরটাল ইঞ্জিন’। এই উপন্যাসে দেখা মেলে পোস্ট-এপোক্যালিপ্টিক পৃথিবীর ‘স্টিমপাঙ্ক’ লন্ডন শহরের। ফিউচারিস্টিক শহরগুলো সম্পদের সন্ধানে বিশাল চাকা লাগিয়ে ঘুরে বেড়াতে শুরু করে পৃথিবীর বুকে। বড় শহরগুলো দখল করে নেয়। ছবির প্রধান চরিত্র ১৫ বছরের এক কিশোর। সে তার সঙ্গীদের নিয়ে এক পাগল বিজ্ঞানীর হাত থেকে পৃথিবীকে বাঁচানোর পন্থা খুঁজে বেড়ায়।