No icon

বন্ধ হয়ে যেতে পারে স্টার সিনেপ্লেক্স

সরকারের সহযোগিতা না পেলে বন্ধ হয়ে যেতে পারে দেশের জনপ্রিয় প্রেক্ষাগৃহ স্টার সিনেপ্লেক্স। আজ (১২ আগস্ট) এক সংবাদ সম্মেলনে এমন আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান মাহবুব রহমান রুহেল। তিনি সরকারের কাছে কিছু দাবি তুলে ধরেছেন। স্টার সিনেপ্লেক্স কর্তৃপক্ষের তুলে ধরা দাবীগুলো পূরণ হলে ব্যবসা চালিয়ে যেতে পারবে প্রতিষ্ঠানটি। অন্যথায় ব্যবসা গুটিয়ে নেয়া ছাড়া আর কোনও উপায় থাকবে না।

স্টার সিনেপ্লেক্স কর্তৃপক্ষের দাবীগুল‌ো হলো -

১. নগরবাসীর বিনোদনের জন্য স্বাস্থ্যবিধি মেনে অনতিবিলম্বে সিনেমা হলসমূহ খুলে দেয়া হোক

২. জরুরি আর্থিক সহায়তা কিংবা প্রণোদনা তহবিল ঘোষণা

৩. সিনেমা হলের টিকিটের ওপর সব ধরনের মূসক ও কর মওকুফের সুযোগ প্রদান

৪. সুদবিহীন ঋণ প্রদানের অনুমোদন

৫. উপমহাদেশীয় ভাষার চলচ্চিত্রসমূহ শর্তহীন ভাবে আমদানির অনুমতি প্রদান

এর বাইরে আরও দুটি দাবী উত্থাপন করেন স্টার সিনেপ্লেক্স চেয়ারম্যান। স্টার সিনেপ্লেক্সের শাখা আছে এমন শপিংমল কর্তৃপক্ষ যাতে ভাড়া মওকুফ করে ও অবস্থা স্বাভাবিক না হওয়া অব্দি অর্ধেক ভাড়া নেয়। তার আরেকটি দাবী ছিলো প্রযোজক সমিতির কাছে। তারা যেন সেন্সর হওয়া ছবিগুলো মুক্তির ব্যবস্থা গ্রহণ করেন। নতুন ছবি না চললে দর্শক আসবে না এমনটি মনে করেন তিনি।

রুহেল মনে করেন মাল্টিপ্লেক্স সিনেমাহলে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে সিনেমা প্রদর্শন করা যেতে পারে। তিনি বলেন, অন্যান্য জনবহুল জায়গার চেয়ে এখানে স্বাস্থ্যবিধি মেনে বিনোদনের সুযোগ প্রদান করা সম্ভব। তা ছাড়া স্টার সিনেপ্লেক্স কর্তৃপক্ষ বরাবরই স্বাস্থ্য সচেতন। পরিস্কার পরিচ্ছন্নতার বিষয়ে শুরু থেকেই আমরা জোর দিয়ে আসছি।

রুহেল বলেন, চীন, জার্মানি, রাশিয়া, যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, ডেনমার্ক, নরওয়ে, ইতালি, সিঙ্গাপুর, দক্ষিণ কোরিয়া, মালয়েশিয়াসহ বিশ্বের অনেক দেশেই এরই মধ্যে সিনেমা হল চালু করা হয়েছে। ভারতেও এ মাসে সিনেমা হল খুলে দেয়ার কথা রয়েছে। পাশাপাশি ক্ষতি পুষিয়ে নিতে আর্থিক সহায়তাও করছে বিভিন্ন দেশের সরকার। মুভি থিয়েটার ক্ষতিগ্রস্ত খাতগুলোর জন্য ২ ট্রিলিয়ন ডলার আর্থিক সহায়তা বিল পাস করেছে যুক্তরাষ্ট্রের সিনেট। ফ্রান্সের সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় ৫ বিলিয়ন ইউরো বরাদ্দ দিয়েছে। যুক্তরাজ্য দিয়েছে ২ বিলিয়ন ডলার। এমন অবস্থায় আমাদের দেশেও সিনেমা হল চালু রাখতে সরকারের আন্তরিক সহায়তা জরুরি।

উল্লেখ্য, প্রায় ১৬ বছর ধরে বাংলাদেশে ব্যবসা করছে স্টার সিনেপ্লেক্স কর্তৃপক্ষ। বর্তমানে ঢাকায় তিনটি শাখায় ১৫টি স্ক্রিনে তারা সিনেমা প্রদর্শন করছে। মিরপুরে চতুর্থ শাখা উদ্বোধনের প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে।

 

Comment As:

Comment (0)