চালবাজে বিয়ের দিনই পালিয়েছি, ফিরেছি শাকিবের সাথে : শুভশ্রী

পেইজ থ্রি ডেস্ক।।

ভারতে আগামী পয়লা বৈশাখে মুক্তি পেতে চলেছে জয়দীপ মুখোপাধ্যায়ের পরিচালনায় শুভশ্রী-শাকিব জুটির ছবি ‘চালবাজ’। বিয়ের পর এটাই শুভশ্রীর প্রথম ছবি। এই নিয়ে শুভশ্রী কথা বলেছিলেন কলকাতার আনন্দবাজারের সাথে। পেইজ থ্রি এর পাঠকের জন্য চালবাজ নিয়ে শুভ্রশ্রীর সে ভাবনা প্রকাশ করা হল।

‘চালবাজ’ তো কর্মাশিয়াল ছবি।

শুভশ্রী: আমার কাছে ছবির দু’টো ডেফিনেশন। ভাল আর খারাপ। সব ছবিই টাকা কামায়। কমার্শিয়াল হওয়ার জন্যই সিনেমা হলে আসে। আমাদের জন্য সবটাই এক। ক্যামেরার সামনে অভিনয়। যে চরিত্র পাই সেটা ফুটিয়ে তোলা। ফলে বলতে পারেন, এটা একটা ভাল ছবি।

এই ভাল ছবির গল্পটা কেমন?

শুভশ্রী: গল্পটা বেসিক্যালি রমকম। রোম্যান্টিক, কমেডি, অ্যাকশন সব কিছু নিয়েই ফুল এন্টারটেনমেন্ট প্যাকেজ।

আর আপনার চরিত্র?

শুভশ্রী: আমার চরিত্রের নাম শ্রীজাতা। সে হাইলি অ্যাম্বিশাস। পড়াশোনার তাগিদে লন্ডনে একটা ছেলের সঙ্গে পরিচয় হয়। ভায়া ফেসবুক। বিয়ের দিনই শ্রীজাতা পালিয়ে যায় ছেলেটার ভরসাতে। কেমব্রিজ থেকে পিএইচডি করতে চায়। কিন্তু সেখানে গিয়ে দেখে ছেলেটা একেবারেই জালি। তার পর হিরো অর্থাত্ শাকিবের সঙ্গে পরিচয় হয়। এর পর কোনও একটা কারণে মেয়েটিকে ভারতে ফিরতে হয়, উইথ শাকিব। নানা রকম টার্নস অ্যান্ড টুইস্ট শুরু হয় ভারতে আসার পর। যেটা দেখতে হলে যেতে হবে।

‘নবাব’-এর পর ফের শাকিবের সঙ্গে কাজ করলেন। আপনাদের কেমিস্ট্রি এ বার দর্শকদের নতুন কী দেবে?

শুভশ্রী: গল্পটা চেঞ্জ হলেই কেমিস্ট্রিতে নতুন অ্যাঙ্গেল আসে। ‘নবাব’ ডিফারেন্ট জনারের ছবি ছিল। এই ছবিতে দু’জনের ক্যারেক্টার বদলে গিয়েছে। ফলে কেমিস্ট্রিও বদলে গিয়েছে।

আচ্ছা, আপনার দেখা সেরা ‘চালবাজ’ কে?

শুভশ্রী: দেখুন, আমি চালবাজ হিসেবে কাউকে দেখি না। আসলে নেগেটিভ ওয়েতে কাউকে দেখতে পছন্দ করি না। কেউ যদি চালবাজি করেও সেটাকেও ইগনোর করি।

নিজে কখনও চালবাজি করেছেন?

শুভশ্রী: মজা করে হয়তো অনেক চালবাজি করেছি। কিন্তু অন আ সিরিয়াস নোট আই ডোন্ট লাইক চালবাজি। আমি খুব স্ট্রেট ফরোয়ার্ড গার্ল। কাউকে খুন করতে চাইলে মুখের ওপর বলে দেব। আমাকেও কেউ খুন করতে চাইলে মুখের ওপর বললে খুশি হব। আমি বরং বলব, গো ফর ইট।