বিনোদনের ফেরিওয়ালা আমি

পেইজথ্রি ডেস্ক।।

আসিফ আকবর। তাকে নতুন করে পরিচয় করিয়ে দেয়ার কিছু নেই। বাংলার জনপ্রিয় এই শিল্পী, সঙ্গীত জীবনের নানা অভিজ্ঞতা নিয়ে মাঝে মাঝেই ফেসবুক পাতায় লিখেন। আজ সোমবার বর্তমান সময়ের কাজ নিয়ে ভিন্ন এক অভিজ্ঞতার কথা শেয়ার করেছেন তিনি।
আসিফ আকবর লিখেছেন, অভিনয় আমাকে দিয়ে হয় না। গুলবাগিচা স্কুলে প্রয়াত কল্যানী সেন গুপ্তা (কল্যানী’দি)আমাকে দিয়ে অভিনয় করিয়েছেন জোর করে। বিদ্রোহী কবির শিশুতোষ গল্প ‘খেলা ঘরের পুতুল গুলো’ নাটিকাতে আমার কমেডি রোল ছিল পণ্ডিত বুড়ো। তারপর অভিনয় হয়নি, অত্যন্ত কঠিন কাজ। ২০০৩ সালে বিশিষ্ট অভিনেত্রী এবং পরিচালক তানিয়া আহমেদের (ভাবী) নির্দেশনায় বাধ্য হলাম মিউজিক ভিডিও করতে, প্রত্যেক গানের আলাদা ডিজাইনের পোশাক। কাজ শেষ করে আবার ঝিম মারলাম।
২০১৭ সালে এসে আর বাঁচতে পারলাম না, কিছু গানে মিউজিক ভিডিও এখন অপরিহার্য। একটা গান গাইতে সময় লাগে বিশ মিনিট আর শুটিংয়ে দুই থেকে পাঁচ দিন। যুগের সাথে তাল মেলাতে এসেছি এই মধ্য বয়সে। আমার কিছু করার নেই, প্রযোজক আর পরিচালকের নির্দেশমতো কাজ করতে বাধ্য। এখন ইচ্ছে করলেই চুল কাটাতে পারি না, বড়ও রাখতে পারি না, শেভ করা না করাও তাদের উপর। ড্রেস ডিজাইনার আর মেকআপ আর্টিস্টরাও রীতিমত আমাকে কার্টুন বানিয়ে ছাড়ছে প্রতিনিয়ত। ‘সাদা আর লাল’ গানের কথা না হয় চেপেই গেলাম।
নতুন গানের মিউজিক ভিডিও নিয়ে তিনি লিখেছেন, ‘নেই প্রয়োজন’ গানের শুটিংয়ে আরো এক ডিগ্রী উপরে যেতে হলো। শীতে বৃষ্টিতে ভেজা আর মদ খাওয়ার সিনের শট দিতে হয়েছে। মদের বোতলে ঢুকিয়ে দেয়া হয়েছে এনার্জী ড্রিংক, এটা আরো বিদঘুটে টেস্ট, মনে হলো পচা কাঁঠালের জুস খাচ্ছি। এসব করতে হয়, আরো অনেক কিছু করতে হবে। চোখ দিয়ে পানি আসে না, মেকআপ আর্টিস্ট চাইলেন গ্লিসারিন দিতে, আমি কোনোভাবেই দিবো না, এরপর ধুপ এর ধোঁয়ায় চোখ দিয়ে পানি বের হয়ে গেলো অটোম্যাটিক, সাথে সাথেই টেক, এখন লজ্জা কেটে গেছে।
সমালোচকদের উদ্দেশ্য করে এ শিল্পী লিখেছেন, বিনোদনের ফেরিওয়ালা আমি, এর বাইরে ভাবার অবকাশ নেই। কাজের ক্ষেত্রে আমি আর লজ্জা পাই না, আবার সময়কেও এড়িয়ে চলা যাবে না। আপনারা বিনোদিত হন বা না হন আমি বিনোদন দিয়ে যাবো। বেকার বিদগ্ধ সমালোচকদের জন্য বরাদ্দ শুকনো চিড়া আর পাটালী গুড়, উপভোগকারীদের জন্য শুধু আনন্দ আনন্দ আর আনন্দ।
এতদিন মিউজিক ভিডিওর বিষয়টি এড়িয়ে গেলেও সম্প্রতি নিয়মিতভাবেই ভিডিওর কাজ করছেন আসিফ। এসব গানে অভিনয় করতেও দেখা যাচ্ছে তাকে। তার অভিনীত এসব মিউজিক ভিডিও ভক্তরা দারুণভাবে গ্রহণ করছে।

মতামত দিন