পেইজ থ্রি ডেস্ক।।

বলিউডের বহুল প্রতীক্ষিত ছবি ‘সঞ্জু’। এতে সঞ্জয় দত্তের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন রনবীর কাপুর। এখন শোনা যাচ্ছে, ছবিটির একটি গানে দেখা যাবে খোদ সঞ্জয় দত্তকেই!

গত ২৪ এপ্রিল টিজার মুক্তির পর ঝড় তোলে ‘সঞ্জু’। এতে ছয়টি রূপে দেখা দিয়ে রীতিমত চমকে দেন রনবীর কাপুর। এদিকে নির্মাতা প্রতিষ্ঠান সূত্রে জানা গেছে, স্বয়ং সঞ্জয় ছবিটির একটি প্রোমোশনাল গানে রনবীরের সাথে পারফর্ম করবেন। গানটা শুধু প্রোমোশনের জন্য ব্যবহৃত হবে এবং এটি ছবিটিতে ব্যবহার করা হবে না।

রাজকুমার হিরানি পরিচালিত এই ছবিটি আগামী ২৯ জুন মুক্তি পাওয়ার কথা রয়েছে।

পেইজ থ্রি ডেস্ক।।

সেই ১৯৯৫ সালে ‘রক স্টারস’ দিয়ে শুরু। এরপর গেছে ২২ বছর। আর এই ২২ বছরে প্রিন্স মাহমুদের সুরে ৪৯টি অ্যালবাম প্রকাশ পেয়েছে। যার মধ্যে শতভাগ সুরের পাশাপাশি যার ৯৫ ভাগ গানের কথা তার নিজেরই লেখা।

এসবের মাঝে নতুন খবর হল, নানা পদের সিঙ্গেল আর মিউজিক ভিডিওতে ঠাসা এই ঈদেও প্রিন্স মাহমুদ হাজির হচ্ছেন তার নতুন অ্যালবাম নিয়ে। নাম রেখেছেন ‘প্রিন্স মাহমুদ মিক্স’। এটি তার ক্যারিয়ারের ৫০তম অ্যালবাম।

যেখানে গান গেয়েছেন সময়ের পাঁচ জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী তাহসান, তপু, মিনার, ইমরান ও শোয়েব। থাকছে নারী কণ্ঠেরও চমক। তবে সে বিষয়ে এখনই মুখ খুলতে নারাজ এই গানকবি। তিনি জানিয়েছেন, ‘ওদের খবরটা দুদিন পরে দিচ্ছি। কারণ, সংখ্যাটা কমতে বাড়তে পারে। তবে ছেলেদের গানগুলো ফাইনাল।’

 

পেইজ থ্রি ডেস্ক।।

উৎসবে আমদানি নয়, যৌথ প্রযোজনার ছবি চলবে- বুধবার (৩০মে) এমনই আদেশ দিয়েছেন বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন আপিল বেঞ্চ। সেই আদেশে বলা হয়েছে,ঈদুল ফিতর, ঈদুল আজহা, পূজা এবং পহেলা বৈশাখের উৎসবে যৌথ প্রযোজনার ছবি ছাড়া ভারতীয় বাংলা, হিন্দি, পাকিস্তানি ছবিসহ বিদেশি ছবি আমদানি, বিতরণ ও প্রদর্শন করা যাবে না।

আর এমন সিদ্ধান্তের পর শাকিব খানের তুমুল আলোচিত ছবি ‌‘ভাইজান এলো রে’ ও জিৎ-মিমের ‘সুলতান: দ্য সেভিয়ার’ এবারের ঈদ উৎসবে বাংলাদেশে মুক্তি পাচ্ছে না। কারণ, এই ছবি দুইটি ভারতীয় ছবি। যদিও প্রথমে ছবি দুটি যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত বলে শোনা যাচ্ছিলো।

পেইজ থ্রি’কে হল মালিক প্রর্দশক সমিতির একাধিক নেতা বিষয়টি নিশ্চিত করেছে যে, ঈদের দুই সপ্তাহ পর মুক্তি পাওয়ার সম্ভাবনা আছে ভাইজান ও সুলতান  ছবি দুটির। এখন চলছে সিনেমা দুটি আমদানিকরনের পরিকল্পনা।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এই দুই সিনেমার প্রযোজনা সংস্থার দুই কর্মকর্তা জানিয়েছেন, যেহেতু সিনেমাগুলো ঈদে কলকাতায় মুক্তি পাবে, তাই আমাদের এখানে তার দু-এক সপ্তাহের মধ্যে মুক্তি দিতে না পারলে সমস্যা। কারণ কলকাতায় সিনেমা খুব সহজেই পাইরেসি হয়ে যায়।আমরা চাচ্ছি ঈদের দুই সপ্তাহ পরেই মুক্তি দিতে। এখন প্রযোজক সমিতি আমাদের কবে ডেট দেয় সেটাই দেখার বিষয়।

উল্লেখ্য, জয়দীপ মুখার্জি পরিচালিত ‘ভাইজান এলো রে’তে আছেন শাকিব খান, শ্রাবন্তী ও পায়েল। প্রযোজনা করেছে এসকে মুভিজ। ‘সুলতান দ্য সেভিয়র’ পরিচালনা করেছেন রাজা চন্দ। অভিনয় করেছেন জিৎ ও বিদ্যা সিনহা মিম। প্রযোজনা করেছে জিতস ফিল্মওয়ার্কস ও জাজ মাল্টিমিডিয়া।

 

পেইজ থ্রি ডেস্ক।।

গত ২২ মে স্টারলাইট কারখানা বন্ধের দাবিতে বিক্ষোভ-আন্দোলনে পুলিশের গুলিতে নিহত ১৩ জনের পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে বৃহস্পতিবার তুতিকোরিন গিয়েছিলেন রজনীকান্ত। সেখানেই সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাব দিতে গিয়ে হুমকির সুরে কথা বলেন। তাঁকে যখন ওই মৃত্যু নিয়ে প্রশ্ন করা হয়, ক্ষিপ্ত হয়ে রজনী দাবি করেন, কয়েকজন বিদ্রোহী পুলিশকে মারধর শুরু করার পরই সংঘর্ষের সূত্রপাত। তিনি আরও জানান, এত প্রতিবাদ হলে একদিন রাজ্য ‘কবরখানায়’ পরিণত হবে। রজনীর এই মন্তব্যের প্রেক্ষিতে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দেয় রাজনৈতিক মহলে। শাসক শিবির তাঁর এই মন্তব্যকে স্বাগত জানালেও, বিরোধীরা তীব্র সমালোচনা করে।

সম্প্রতি সংবাদ সম্মেলনে মেজাজ হারিয়ে ফেলার জন্য দুঃখপ্রকাশ করেছেন দক্ষিণের এই সুপারস্টার। এক টুইট বার্তায় রজনীকান্ত জানিয়েছেন, কাউকে আঘাত করার কোনও উদ্দেশ্য ছিল না আমার। যদি কোনও সাংবাদিক আঘাত পেয়ে থাকেন, তাহলে আমি দুঃখিত।

পেইজ থ্রি ডেস্ক।।

আজ ১ জুন ইফতার ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি। সেই ইফতার ও দোয়া মাহফিলের দাওয়াত কার্ড না পাওয়ার অভিযোগ করেছেন চিত্রনায়ক ওমর সানি। শুক্রবার বিকেলে ফেসবুক লাইভে এসে তিনি এই অভিযোগ করেন।

ফেসবুক লাইভে ওমর সানি জানিয়েছন, শিল্পী সমিতি যেভাবে হোক, ভোট দিয়ে অথবা জালিয়াতির মাধ্যমে হোক, মিশা সওদাগর এবং জায়েদ খান এখন শিল্পী সমিতির সভাপতি ও সেক্রেটারি। তাদের পুরো একটা কমিটিও আছে। আজকে ১ জুন শিল্পী সমিতির ইফতার। কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য যে শিল্পী সমিতির ইফতারের দাওয়াত কার্ড আমি ও মৌসুমী পাইনি। সাথে ইরিনের কার্ডটিও পাইনি। যদিও ইরিন বাংলাদেশের বাহিরে আছে, তারপরও সদস্য হিসেবে তার কার্ড অবশ্যই পাবো। আমি যদি পরিচালক এবং প্রযোজক সমিতির কার্ড না পাই তাতে কোনো দুঃখ নেই। কারণ ওইসব সমিতির সদস্য নই আমি। কিন্তু আমি শিল্পী সমিতির সদস্য।

অন্যদিকে, আমি পরিচালক এবং প্রযোজক সমিতির কার্ড পেয়েছি। কয়েকদিন আগে শিল্পী সমিতির পাশ দিয়ে যাচ্ছিলাম, তখন শিল্পী সমিতির জাকির আমাকে দেখেছে তারপরও কার্ডটা দেয়নি। মিশা তুই কয়েকদিন আগে কক্সবাজারে ছিলি, কিংবা ঢাকায় আছিস। তুই তো সভাপতি, তোর তো একটা পাওয়ার আছে। কিন্তু তুই এই পাওয়ার লেস অবস্থায় আর কতদিন থাকবি? বলে মিশার কাছে প্রশ্ন রাখেন সানি।এ সময় অভিনেতা জায়েদ খানকে উদ্দেশ্য করে সানি বলেন, জায়েদ তুমি সেক্রেটারি, ভুলে গেছ তোমাদের বাহবা গাইলে তারা ভালো, না গাইলে খারাপ এটা কিন্তু ঠিক না। তোমাকে, মিশা এবং পুরো কমিটিতে স্বীকার করতে হবে আমি সমিতির সদস্য। এবং সিনিয়র হয়ে গেছি। এছাড়া সিনিয়র শিল্পী ফারুক, আলমগীর, রোজিনা এবং অঞ্জনাদের রীতিমত ক্যাশ করা হচ্ছে বলেও মন্তব্য করেন সানি। তাদের একটু দৃষ্টি দেয়ার অনুরোধ করেন তিনি।

শিল্প সমিতির ছাঁটাই-বাছাই নিয়েও কথা বলেন সানি। অনেক শিল্পদের ছাঁটাই-বাছাই করা হয়েছে। তার মধ্যে ইরিন। ইরিন ১০/১১টা ছবির হিরোইন। তারপরও ছাঁটাই করা হয়েছে। সেইম, সেইম। আমি ইফতারে যাবো কিনা মৌসুমীকে নিয়ে কিন্তু সেটা বড় কথা নয়। কিন্তু কার্ডটা তো পাবো। আমি তো যেতেও পারি। আমার অসুস্থতা বা চাচা শ্বশুড় হসপিটালে। সব মিলে নাও যেতে পারি। তারপরও কার্ডটা তো পাবো। এসময় তিনি সমিতির সদস্যদের দৃষ্টি আর্কষণ করেন।

আমি শিল্পী সমিতির কমিটিতে ছিলাম, বলবো না যে আমরা দুধে ধোয়া তুলসী পাতা। কিন্তু আজ কোথায়? যারা চামচামি করবে তাদের নিয়ে ব্যস্ত থাকবে তোমরা, এটা ঠিক না। আজকে ইন্ডাস্ট্রির যে অবস্থা, এটাকে বাঁচাতে হবে, নিজেদের বাঁচতে হবে। আল্লাহর কাছে ক্ষমা চাইতে হবে। আমাদের রিজিকের জায়গাটা কত বড় খারাপ হয়ে গেছে। আজকে আমার যা কিছু আছে সবই চলচ্চিত্রের টাকা দিয়ে। আজকে ওমর সানিকে সবাই চিনে চলচ্চিত্রের মাধ্যমে। শুধু কয় দিন পর পর মহরত করবো ছবি হবে না, আর আমি বললাম আমারে ছাড়া চলচ্চিত্র অচল। আর আমার একটা ছবিও চলবে না। তাহলে কিভাবে বলবো আমি ছাড়া চলচ্চিত্র চলবে না।

ওমর সানি লাইভে আরও বলেন, প্রবেশনাল শিল্পীদের বাদ দিতে হবে। তাদের রেখে আমাদের সমিতি। যাচাই-বাছাই করে মানুষকে অপমান অপদস্ত করার অধিকার তোমাদের নেই। আবার বলা হবে আমরা কিছু করিনি, জাস্ট মুখ দেখাদেখি করেছি। তাদের ভোটেই তোমরা পাস করেছো। তোমরা ভোটে পাস করেছো নাকি কি করছো। আল্লাহ ভালো জানে। আমি জাতির কাছে দিবো। আমি ফেল করেছি বলে বলছি, সেটা কিন্তু নয়।ক্ষমতায় কিন্তু কেউ সারাজীবন থাকতে পারে না। মিশা তোমারাও থাকতে পারবে না। আরও কেউ না কেউ আসবে।

অন্যদিকে জায়েদ খান ফেসবুকে ওমর সানির পোস্টের নিচে মন্তব্য করেন, ‘আপনার কোথাও ভুল হচ্ছে। আপনার কার্ড আমি নিজে দিতে আপনার বাসায় গিয়েছি, কিন্তু আপনার বাসায় কেউ না থাকার কারণে আমি আপনার গার্ডের কাছে তার রিসিভ সই সহ কার্ড দিয়ে আসছি।’

এমনকি জায়েদ খান গার্ডের স্বাক্ষরের স্ক্রীনশর্ট তুলে ধরেন। জবাবে ওমর সানি একটি ভিডিও ক্লিপ তুলে ধরেন। সেখানে সানির বাসার গার্ডরা দাওয়াত কার্ড পাওয়ার বিষয়টি অস্বীকার করেন।

 

পেইজ থ্রি ডেস্ক।।

বহুল প্রতিক্ষীত ঢালিউড সুপারস্টার শাকিব খান অভিনীত ‘ভাইজান এলোরে’ ছবির টাইটেল গান প্রকাশ পেয়েছে। আজ সন্ধ্যা ৬টায় গানটি প্রযোজনা সংস্থা এসকে মুভিজের ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশ পেয়েছে। গানটি লিখেছেন রাজিব দত্ত, কন্ঠ দিয়েছেন অভিজিৎ। সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন স্যাভি। কোরিওগ্রাফী করেছেন আদিল শেখ। গানটিতে নেচে গেয়ে মাত করেছেন শাকিব খান , সঙ্গে ছিলেন পায়েল সরকার।

ছবিটি পরিচালনা করেছেন জয়দীপ মুখার্জি। ছবিতে শাকিব খানের বিপরীতে অভিনয় করেছেন শ্রাবন্তী ও পায়েল সরকার। ছবিটি ঈদে কলকাতায় মুক্তি পাচ্ছে।

 

পেইজ থ্রি ডেস্ক।।

বলিউড ভাইজান সালমান খানকে প্রকাশ্যে মারধোর করলে মিলবে ২ লক্ষ টাকা। এমনই ঘোষণা দিয়েছেন ভারতের বিশ্ব হিন্দু পরিষদের প্রাক্তন আন্তর্জাতিক সভাপতি প্রবীণ তোগাড়িয়ার নয়া সংস্থা হিন্দু হাই এজ এর আগ্রার ইউনিট চিফ গোবিন্দ পরাশর। হিন্দু ভাবাবেগে আঘাত দেওয়ার কারণেই এমন কথা তিনি বলেছেন বলে জানা গেছে।

ভারতীয় গণমাধ্যম সূত্রের খবর, সালমানের নিজস্ব প্রোডাকশন হাউসের লাভরাত্রি ছবিকে ঘিরেই এই সমস্যা। হিন্দুদের উৎসব নবরাত্রিতে এই ছবির মুক্তি হতে পারে বলে খবর। ছবির নামকরণ লাভরাত্রি হওয়ায় তা নবরাত্রিকে, অর্থাৎ হিন্দু ভাবাবেগে আঘাত করেছে।

লাভরাত্রি ছবিটি সালমানের প্রযোজনা সংস্থার, যেখানে অভিনয় করেছেন তাঁর শ্যালক আয়ুষ শর্মা। চলতি বছরের অক্টোবরে এই ছবির মুক্তি পাওয়ার কথা।

বৃহস্পতিবার গোবিন্দ পরাশর এবং সংস্থার অন্যান্যরা ভগবান টকিজের সামনে হাজির হয়ে সালমানের ছবির পোস্টার পুড়িয়ে দেয়। সেই সঙ্গে সালমান এবং তার লাভরাত্রি ছবির বিরুদ্ধে স্লোগানও তোলে। গোবিন্দ পরাশর স্পষ্ট জানিয়ে দেন, সালমানের এই ছবি একটি পবিত্র উৎসবকে বিকৃত করছে যা লাখ লাখ হিন্দুর মনে আঘাত দিয়েছে। এর তীব্র নিন্দা করে ছবিটি নিষিদ্ধ করার পক্ষে বলেন তিনি। এবং কোনওমতেই ছবির প্রদর্শন যে হতে দেবেন না।

তিনি আরও জানিয়েছেন, সেন্সর বোর্ডের এই ছবিকে ছাড়পত্র দেওয়া উচিত নয়৷ যদি ছাড়পত্র পেয়েও যায় তাহলে তা হিন্দু হাই এজের বিক্ষোভকে আমন্ত্রণ জানাবে।

 

পেইজ থ্রি ডেস্ক।।

সম্প্রতি কয়েকটি অনলাইন পোর্টালে ‘লিভ টুগেদার করছেন ভাবনা’ এমন খবর আসে। আশনা হাবিব ভাবনা এসব খবরে বেশ বিরক্ত। নিজের ফেসবুক হ্যান্ডেলে ভাবনা স্পষ্ট করেছেন,লিভ টুগেদার করেন না, থাকেন পরিবারের সাথে।

ভাবনা জানিয়েছেন, আমি অতি সাধারণভাবে জীবন যাপন করতে ভালোবাসি। কারো সাথে ঝগড়া, কখনও ফেসবুকে কাউকে প্রতিউত্তরও দেই না। সস্তা কিছু অনলাইন মাঝে মাঝে যা তা নিউজ করে থাকে ,তা নিয়ে কথা বলার মতো রুচি আমার নেই ,তবে যারা আমাকে কাছে থেকে চেনেন তারা আমার পরিবার সম্পর্কে জানেন। এবং তাও জানেন যে আমি আমার মা -বাবার বাসায় থাকি এবং আমি পরিস্কার করে বলতে চাই সাংবাদিকতা করুন নোংরামি না করে,নিজেদের মা, বোন, বউ নিশ্চয়ই আছে, সেরকম আমার ও পরিবার আছে।

তিনি বলেন, যদি প্রেমের নিউজ করতে চান, তাহলে সময় ব্যায় করুন,আমি কোথায় যাই, কার সাথে খেতে যাই, আমার পিছনে ক্যামেরা নিয়ে ঘুরে প্রেমের নিউজ লিখবেন। কিন্তু বাজে কথা লিখবেন না, খোজঁ নিন আমি কোথায় থাকি আর লিভটুগেদার এসব আমি বিশ্বাসও করি না।

ভয়ঙ্কর সুন্দরী বলেন, আমি চোর নই ,আমি শিল্পী। শিল্পীরা সহসী হয়, ঠিক তেমনি আমিও। আমি আমার বিয়ের আগ পর্যন্ত সিঙ্গেল আছি। আর বিয়ে করলে ঢোল পিটিয়ে করব, পুরান ঢাকার এবং পাঠান পরিবারের মেয়ে আমি লুকিয়ে বিয়ে করব না ,হাজারটা অনুষ্ঠান হবে ,তখন নিউজ করতে করতে হাঁপিয়ে যাবেন।

কবে বিয়ে করবেন সেটাও জানিয়ে দিয়েছেন এই অভিনেত্রী। বলেন,হ্যাঁ বিয়ে করায় ঠিক সময় এখনও আসেনি। সবে মাত্র একটা সিনেমা করেছি, ২০টা সিনেমা না করে বিয়ে করছি না।

 

পেইজ থ্রি ডেস্ক।।

আগামী ৭ সেপ্টেম্বর প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাচ্ছে ‘দেবী’। জন্মদিন উপলক্ষে আজ শুক্রবার সকালে ফেসবুকে এক ভিডিও বার্তা দেন চঞ্চল চৌধুরী। সেখানে তিনি ‘দেবী’ ছবির মুক্তির তারিখ ঘোষণা করেন। বললেন, ‘জন্মদিনে এটা আমার পক্ষ থেকে আপনাদের জন্য উপহার।’

ভিডিও বার্তায় চঞ্চল চৌধুরী বলেছেন, ‘যাঁরা হ‌ুমায়ূন আহমেদকে পছন্দ করেন, তাঁরা মিসির আলিকেও পছন্দ করেন। এই প্রথম বড় পর্দায় আসছে মিসির আলি। রোজার ঈদের পরপরই রিলিজ হওয়ার কথা ছিল। সেটা হচ্ছে না। কোরবানির ঈদের পর, আজ থেকে ঠিক ৯৮ দিন পর প্রেক্ষাগৃহে ছবিটি মুক্তি পাবে। আপনারা সবাই “দেবী”দেখতে আসবেন। আমার কাছে আপনাদের যেমন চাওয়া বড় বড় কাজ, আপনাদের কাছেও আমার অনেক চাওয়া আছে। আমাদের কাজগুলো আপনারা এসে দেখবেন। শিল্প কিন্তু এমনি এমনি বাঁচে না, শিল্প বাঁচে পৃষ্ঠপোষকতায়। দর্শক আপনারা হচ্ছেন আমাদের শিল্পের পৃষ্ঠপোষক। তাই আপনাদের অনুরোধ করব, আপনারা হলে এসে “দেবী” দেখবেন।’

চঞ্চল চৌধুরী আরও বলেন, ‘আমরা একটি খারাপ সময়ে দাঁড়িয়ে আছি। সম্পর্কগুলো ভেঙে যাচ্ছে। দূরত্ব তৈরি হচ্ছে। পাশের মানুষগুলোকে ভালোবাসতে হবে। পাশের মানুষ যেন দূরে সরে না যায়। সবাইকে ভালোবাসতে হবে, দেশকে ভালোবাসতে হবে, আত্মকেন্দ্রিক চিন্তা থেকে বেরিয়ে এসে যা করলে পরিবারের মঙ্গল হয়, দেশের মঙ্গল হয়, সেটাই করতে হবে।’

‘দেবী’ সিনেমা পরিচালনা করেছেন অনম বিশ্বাস। ছবিতে আরও অভিনয় করেছেন জয়া আহসান, অনিমেষ আইচ, ইরেশ যাকের, শবনম ফারিয়া প্রমুখ।

 

পেইজ থ্রি ডেস্ক।।

শোবিজের দুই ভুবনের দুই তারকার আজ শুভ জন্মদিন। একজন গানের মানুষ। ‘তুমি রোজ বিকেলে’, ‘তোরে পুতুলের মত করে সাজিয়ে’, কিংবা ‘যেখানে সীমান্ত তোমার’ গানগুলো আজীবন বাংলা গানের শ্রোতাদের মনে বাঁচিয়ে রাখবে তাকে। এমনি শত প্রাণবন্ত গান রয়েছে তার দীর্ঘদিনের সংগীত ক্যারিয়ারে। তিনি শ্রোতানন্দিত সংগীতশিল্পী কুমার বিশ্বজিৎ।

আর একজন অভিনয়ের মানুষ। হাস্যরস কিংবা সিরিয়াস সবখানেই তিনি সাবলীল অভিনয় দিয়ে জয় করেছেন দর্শকের মন। তার অভিনীত ‘মনপুরা’ চলচ্চিত্রটি গেল দশ বছরের সেরা ব্যবসা সফল ছবির একটি। বলছি আয়নাবাজি খ্যাত চঞ্চল চৌধুরীর কথা।

১৯৬৩ সালের ১ জুন জন্ম কুমার বিশ্বজিতের। চট্টগ্রাম জেলায় তার শৈশব অতিবাহিত হয়েছে। ‘তোরে পুতুলের মত করে সাজিয়ে’ গান দিয়ে উচ্চ মাধ্যমিকের ছাত্রাবস্থাতেই তিনি পেয়েছিলেন জনপ্রিয় গায়কের খ্যাতি। তারপর পথ চলেছেন সাফল্যের বরপুত্র হয়ে।বাংলা আধুনিক কিংবা চলচ্চিত্রের গানে দীর্ঘ চার দশক ধরে কন্ঠ দিচ্ছেন কুমার বিশ্বজিৎ। জয় করে নিয়েছেন তিনবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। তবে গুণী এই কন্ঠশিল্পী মনে করেন, শ্রোতা-ভক্তদের ভালবাসাই একজন শিল্পীর জীবনে সবচাইতে বড় আশীর্বাদ। আর সেটা তিনি পেয়েছেন।

অন্যদিকে বাংলাদেশের পাবনা জেলার সুজানগর উপজেলার নজিরগঞ্জ ইউনিয়নের কামারহাট গ্রামে ১৯৭৪ সালের ১ জুন জন্মগ্রহণ করেন চঞ্চল চৌধুরী। গ্রামের স্কুল থেকে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক এবং রাজবাড়ি সরকারি কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিকে পড়াশোনা করেন। উচ্চমাধ্যমিক শেষ করার পর তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে চারুকলায় ভর্তি হন।

ছোটবেলা থেকেই তার গানবাজনা, আবৃত্তি আর নাটকের প্রতি নেশা ছিল। পরে তার মঞ্চনাটকের প্রতি একটা আগ্রহ সৃষ্টি হয়। মামুনুর রশীদের আরন্যক নাট্যদলের সাথে কাজ করার মধ্যদিয়েই অভিনয় জীবনের শুরু হয়। মামুনুর রশীদের লেখা ‘সুন্দরী’` নাটকে ছোট একটি চরিত্রে তিনি প্রথম অভিনয় করেন। তিনি বিভিন্ন বাদ্যযন্ত্র বাজানো, অভিনয়, গান, ছবি আঁকা এসব কিছুতেই সমান পারর্দশী।

মোস্তফা সরওয়ার ফারুকীর ‘তাল পাতার সেপাই’ নাটক দিয়ে দর্শকের কাছে পরিচিত হয়ে ওঠেন এই মঞ্চ অভিনেতা। তারপর থেকেই তিনি মঞ্চের পাশাপাশি বিরামহীন কাজ করে যাচ্ছেন টিভি নাটকে। তিনি ২০০৯ সালে গিয়াস উদ্দিন সেলিম পরিচালিত ‘মনপুরা’ ছবিতে এবং মোস্তফা সরয়ার ফারুকী পরিচালিত টেলিভিশন ছবিতে অভিনয় করে প্রশংসিত হন।